ফ্রীল্যান্সিং করে মাসে কত টাকা ইনকাম করা যায়?

ওকে, এইটা একটা অড প্রশ্ন যেটা আমরা নিয়মিত শুনি।

আসলে এই প্রশ্নের উত্তর সরাসরি দেওয়া যাবে না। কারণ কারো মাসিক ইনকাম ডিপেন্ড করে সে কোন ধরনের কাজ করে এবং সে কত টা কাজ করে। কেমন  পরিশ্রম করেন।

ধরুন একজন ডাটা এন্ট্রির কাজ করে মার্কেটপ্লেসে। এখন ডাটা এন্ট্রির ও ওনেক ধরনের কাজ আছে। কেউ যদি সারা দিন টাইপিং এর কাজ করে তাহলে তার ইনকাম অন্যদের তুলনায় অনেক কম হবে। নরমালি ডাটা এন্ট্রির টাইপিং টাইপের কাজের জন্য ঘন্টায় ১০ ডলার করে পাওয়া যায়। এখন সে যদি দৈনিক ৮ ঘন্টা করে কাজ করে তাহলে সে দৈনিক ৮০ ডলার ইনকাম করতে পারবে। তবে ঠিক মত কাজ পেতে হবে। আপনি যে মাসের ৩০ দিনই কাজ পাবেন এরকম কোন গ্যারান্টি নাই। এরকম  কাজ ঘন্টা হিসেবে না করে প্রোজেক্ট হিসেবেও  করা যায়।

এখন ধরুণ কেউ একজন ওয়েব ডেভেলপমেন্ট এর কাজ করে। এখন সে মানে কত টাকা ইনকাম করে এরকম প্রশ্ন যদি করা হয় তাইলেও এইটার উত্তর কোন ওয়েব ডেভেলপার দিতে পারবে না। আসলে তার কোন ফিক্সড ইনকাম নাই মাসে। নরমালি মিডিয়াম লেভেলের এক্সপার্ড ওয়েব ডেভেলপার রা যদি ঘন্টার কাজ করেন তাহলে তারা ঘন্টায় ২০ ডলার বা তারও বেশী নিয়ে থাকেন। কোন প্রজেক্টে কত ঘন্টার কাজ থাকবে তা ঐ প্রোজেক্টের ধরনের উপর নির্ভর করে। কিন্তু নরমালি ওয়েব ডেভেলপার রা প্রোজেক্ট বেইস কাজ করতে পছন্দ করেন ঘন্টার থেকে। ধরুন কোন  ক্লায়েন্ট বলল আমার একটা ওয়েবসাইট বানিয়ে দিতে হবে এবং তার রিকুয়ারমেন্ট বলল।  এবং সে ২০০ ডলার দিবে ঐ সাইটের সম্পুর্ণ কাজের জন্য। ধরুন কাজটি  করতে তার ৪ দিন সময় লাগল। তাহলে সে ৪ দিনে ২০০ ডলার ইনকাম করল। তাই বলে যে সে মাসে ১৪০০ ডলার ইনকাম করতে পারবে তা কিন্তু নয়। সে এর থেকে কমও ইনকাম করতে পারে মাসে এবং আরো বেশী ইনকাম করতে পারে। সে এই কাজটি করার পর যদি আবার ৫০০ ডলারের কাজ পায় এবং ৫ দিনে কাজটি  করে ফেলে তাহলে কিন্তু তার ইনকাম আরো বেড়ে যাবে। আবার এরকম ও হতে পারে সে মাসের শুরুতে  একটি কাজ পেল কিন্তু বাকী মাস সে আর কোন কাজ পেলে না। এরকম হওয়া কিন্তু অস্বাভাবিক নয়। তাই কেউ শিউর দিয়ে বলতে পারবে না যে সে মাসে কত টাকা ইনকাম করতে পারে। তবে মিডিয়াম লেভেলের এক্সপার্ট যারা আছে তারা মাসে ৫০ হাজার থেকে  লক্ষ টাকা ইনকাম করতে পারে। অনেকে  আরো অনেক বেশী ইনকাম করতে পারে। আবার অনেকে আরো অনেক কম ইনকাম করতে পারে।

তাই কোন ফ্রীল্যান্সার কে কত টাকা ইনকাম করে মাসিক এটা জিজ্ঞেস না করাই ভাল হবে।

আবার অনেকের ফিক্সড ক্লায়েন্ট থাকে যারা মাসিক একটা নির্দিষ্ট টাকা দেয় তাদের কে। তবে এরকম ফিক্সড ক্লায়েন্টের কাজ করে এরকম ফ্রীল্যান্সারের সংখ্যা অনেক কম।  এরকম ক্লায়েন্ট থাকলে আপনি মাসে কাজ না থাকলেও বেতন ঠিকই পাবেন।

আবার  অনেক সময় এরকম ও হতে পারে যে এক  মাস ধরে কাজ ই পাচ্ছে না। কাজ না পাওয়াটাও স্বাভাবিক।

 

লেখকঃ সোহেল সরকার

Spread the love

Author: admin